ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিটের আবেদন আসনের চেয়ে ২০০ গুণ বেশি

স্পোর্টস ডেস্ক

২৪ ফেব্রুয়ারি ২০২৪, ০৪:২৩ পিএম


ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিটের আবেদন আসনের চেয়ে ২০০ গুণ বেশি

ছবি- সংগৃহীত।

 

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ মানেই শ্বাসরুদ্ধকর লড়াই। যদিও কয়েক বছর ধরে মাঠে তেমনটা দেখা যায় না। তবুও দুই দলের লড়াই দেখার জন্য উন্মুখ থাকেন দর্শকেরা। এতটাই উন্মুখ থাকেন যে টিকিটের জন্য হাহাকার শুরু হয়ে যায়।

 

জুনে শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের ম্যাচ নিয়েও তেমন দেখা গেছে। ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের টিকিটের জন্য আসনের চেয়ে ২০০ গুণ বেশি আবেদন পড়েছে। অন্য ম্যাচের চেয়ে দুই দলের চাহিদা বেশি থাকে এটা ঠিক, কিন্তু তাই বলে এত বেশি! দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর ম্যাচের টিকিটের চাহিদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আইসিসি।

 

আগামী ৯ জুন নিউইয়র্কের নাসাউ কাউন্টি স্টেডিয়ামে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ হবে। মাঠটির দর্শক ধারণক্ষমতা ৩৪ হাজার। কিন্তু এই ৩৪ হাজার টিকিটের জন্য ১৬১টি দেশের ৩০ লাখ মানুষ পাবলিক ব্যালটে আবেদন করেছেন বলে নিশ্চিত করেছে বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। গত পরশু বিশ্বকাপের ক্ষণগণনার দিন অবিক্রীত টিকিট কেনার শেষ দিন ছিল। এর আগে যুক্তরাষ্ট্রে হতে যাওয়া ১৬ ম্যাচের মধ্যে ৯টির টিকিট আগেই শেষ হয়েছে।

 

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচের তিন ক্যাটাগরির টিকিট ছেড়েছিল আইসিসি। স্ট্যান্ডার্ড টিকিটের দাম বাংলাদেশি মুদ্রায় ১৯ হাজার ২০০ টাকা। স্ট্যান্ডার্ড প্লাসের দাম ৩২ হাজার ৯০০ এবং প্রিমিয়ার টিকিটের দাম ৪৩ হাজার ৯০০ টাকা ধরা হয়েছিল। এই সব ক্যাটাগরির টিকিটের জন্যই আসনের থেকে ২০০ গুণ বেশি আবেদন করেছেন দর্শকেরা।

 

ভারত-পাকিস্তান অর্থকরীর বিষয় থাকায় প্রায় সময় আইসিসি যেন চেষ্টা করে একই গ্রুপে দুই দলকে রাখতে। সর্বোচ্চ ২০ দলের বিশ্বকাপেও একই গ্রুপে রেখেছে দুই দলকে। যুক্তরাষ্ট্র ও ওয়েস্ট ইন্ডিজে এবারই প্রথমবার যেকোনো সংস্করণের বিশ্বকাপে এতগুলো দল অংশ নিচ্ছে। দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর টিকিটের বিষয়ে যুক্তরাষ্ট্রের আয়োজক কমিটির প্রধান নির্বাহী ব্রেট জোন্স বার্তা সংস্থা এএফপিকে বলেছেন, ‘ভারত-পাকিস্তান এমনটি একটি ম্যাচ, যা নিয়ে প্রতিটি বিশ্বকাপে সবার তুমুল আগ্রহ থাকে। এটা খুবই আনন্দের বিষয় যে দল দুটি যুক্তরাষ্ট্রে খেলতে আসছে। টিকিটের জন্য মানুষের এমন আগ্রহ সত্যিই চমৎকার ব্যাপার।’

 

 

Ads