o আজ আন্তর্জাতিক অভিবাসী দিবস o গুজরাট ও হিমাচলে ভোট গণনা শুরু, হাড্ডাহাড্ডি লড়াইয়ের ইঙ্গিত o আজ রাজশাহী মুক্ত দিবস o সাত ঘণ্টা পর ফেরি চলাচল শুরু o শিক্ষকরাই আসল প্রশ্নফাঁসকারী: শিক্ষামন্ত্রী

আজ সোমবার, ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭

আপনি আছেন : প্রচ্ছদ  >  আন্তর্জাতিক  >  জুমার নামাজের পূর্বেই আকসা সঙ্কটের সমাধান না হলে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ

জুমার নামাজের পূর্বেই আকসা সঙ্কটের সমাধান না হলে পরিস্থিতি হবে ভয়াবহ

পাবলিশড : ২০১৭-০৭-২৭ ১৩:৪৪:৪৫ পিএম

।। আন্তর্জাতিক ডেস্ক ।।

জাতিসংঘ সতর্ক করে দিয়েছে বলেছে যে, সাম্প্রতিক আল-আকসা মসজিদে আরোপিত বিধিনিষেধের কারণে সৃষ্ট উত্তেজনা বিশ্বকে একটি সর্বনাশা পরিণতির দিকে ঠেলে দিবে।

জাতিসংঘের মধ্যপ্রাচ্য বিষয়ক শান্তিদূত নিকোলাই ম্লাদেনভ বলেন, ‘উত্তেজিত কর্ম থেকে বিরত থাকা, সংযম দেখানো এবং সমাধান অনুসন্ধানের কাজ করার জন্য আমি উভয় দলের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি’।

তিনি আরো বলেন, ‘এই সপ্তাহের শুক্রবারের মধ্যে বর্তমান সঙ্কটটির সমাধান বের করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আমি মনে করি যদি আমরা এই বর্তমান সঙ্কটের একটি সমাধান শুক্রবারের জুমার নামাজের পূর্বেই না বের করতে পারি তাহলে পরিস্থিতি আরো ভয়াবহ হবে’।

গত শুক্রবার থেকে দুই পক্ষের মধ্যে সহিংসতায় পাঁচজন ফিলিস্তিনি ও তিনজন ইসরাইলি নিহত হয়। ঘটনার সূত্রপাত্র জেরুজালেমে অবস্থিত মুসলিমদের পবিত্রস্থান আল আকসা মসজিদে মেটাল ডিটেক্টর বসানো নিয়ে।

ইসরাইল বলছে, ওই এলাকায় ফিলিস্তিনিদের হামলায় দুজন ইসরাইলি পুলিশ নিহত হবার পর নিরাপত্তা নিশ্চিতের জন্য তারা এই মেটাল ডিটেক্টর বসিয়েছে।

ফিলিস্তিনি জনগণের দাবি, মসজিদ দখলের পায়তারা হিসেবেই ইসরাইল এমনটা করছে। স্থানটি ইহুদীদের কাছেও পবিত্র, তাদের কাছে এটি টেম্পল মাউন্ট।

শনিবার পশ্চিমতীরে অতিরিক্ত সেনা মোতায়েন করেছে ইসরাইল। এছাড়া ফিলিস্তিনিদের বাড়িতে অভিযানও চালিয়েছে তারা। ইসরাইলি পদক্ষেপের প্রতিবাদে শনিবার জেরুজালেমে জড়ো হয় হাজার হাজার ফিলিস্তিনি। তাদের থামাতে স্টান গ্রেনেড ও জলকামান ব্যবহার করে ইসরাইলি পুলিশ।

 ‘এই ঘটনাকে স্থানীয় ঘটনা মনে করা উচিত নয়। এ ঘটনাটি কয়েক শত বর্গমিটারের মধ্যে সংগঠিত হলেও কিন্তু তার দ্বারা সারা বিশ্বের কোটি কোটি মানুষ প্রভাবিত হচ্ছে’।

ইতিমধ্যে ইসরাইলি সরকার ঘোষণা করেছে যে, আল-আকসার প্রবেশপথ হতে তারা মেটাল ডিটেক্টরগুলো সরিয়ে নিবে কিন্তু নজরদারি জন্য অন্য পদ্ধতি অবলম্বন করবে। পাঁচ দিনের মধ্যে তৃতীয়বারের মতো একটি মন্ত্রিসভার বৈঠকের পর এই ঘোষণাটি দেয়া হয়।

অপরদিকে ফিলিস্তিনিরা বলেছে, আল-আকসা হতে মেটাল ডিটেক্টর অপসারণ করাসহ তাদের সমস্ত দাবি পূরণ করতে হবে। ইসরাইল কর্তৃক আল-আকসা মসজিদে আরোপিত বিধিনিষেধ তুলে নেয়া না পর্যন্ত ফিলিস্তিনিরা তাদের আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

পূর্বে জর্দানের বাদশা আবদুল্লাহও ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুকে আল-আকসা হতে নিরাপত্তার ব্যবস্থা সরিয়ে নেওয়ার আহ্বান জানান।

ইসলাম টাইমস অবলম্বনে