o অভিনব কায়দায় গ্যাস সিলিন্ডারে ফেন্সিডিল পাচার; গ্রেফতার ১ o মাটিরাঙ্গাতে সড়ক নিরাপত্তা বিষয়ক সভা অনুষ্ঠিত o নাচোলে কারেন্ট পোকা দমনে সচেতনা মুলক সভা অনুষ্ঠিত o শিবগঞ্জে আওয়ামী মুক্তিযোদ্ধা প্রজন্মলীগের ১১তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত o কানসাটের ২ প্রতিষ্ঠানে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা আদায়

আজ মঙ্গলবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ |

আপনি আছেন : প্রচ্ছদ  >  সংবাদ বিশ্ব  >  রাশিয়ায় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু, জরিপে পুতিন এগিয়ে

রাশিয়ায় নির্বাচনের ভোটগ্রহণ শুরু, জরিপে পুতিন এগিয়ে

পাবলিশড : ২০১৮-০৩-১৮ ১৫:৫৫:০৪ পিএম আপডেট : ২০১৮-০৩-১৮ ১৬:০১:৩২ পিএম

।। সংবাদ বিশ্ব ডেস্ক ।।

রাশিয়ায় প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আজ। রবিবার সকালে শান্তিপূর্ণ পরিবেশে ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী থাকলেও বর্তমান প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন যে আবারো নির্বাচিত হতে যাচ্ছেন তা প্রায় নিশ্চিত।

চলতি সপ্তাহে রাশিয়ার সবচেয়ে বড় সরকারি জনমত যাচাইকারী সংস্থা সারা দেশে জরিপ চালানোর পর জানিয়েছে, ৬৯ শতাংশ উত্তরদাতা পুতিনকে ভোট দেবেন। এর আগে গত বছরের শেষদিকে রাশিয়ার সবচেয়ে বড় স্বাধীন জনমত যাচাইকারী সংস্থা ‘লেভাদা সেন্টার' পুতিনের প্রতি ৭৩ শতাংশের সমর্থন থাকার কথা জানিয়েছিল। গত কয়েক বছর ধরে পুতিনের প্রতি সমর্থনের পরিমাণ প্রায় ৭০ শতাংশের মতো ছিল। ফলে রবিবারের নির্বাচনে পুতিনের জয় একরকম নিশ্চিত বলেই ধরে নিয়েছে বার্তা সংস্থাগুলো।

তবে পাশাপাশি পুতিনের প্রতিদ্বন্দ্বীদের সম্পর্কেও খবর প্রকাশিত হচ্ছে। মূলত তিনজনকে পুতিনের প্রতিদ্বন্দ্বী হিসেবে তুলে ধরা হয়েছে। এর মধ্যে সবচেয়ে আলোচিত হলেন রিয়েলিটি শো'র তারকা ও সাংবাদিক কেসেনিয়া সবচাক।

রাশিয়ার সবচেয়ে বড় বিরোধী নেতা আলেক্সেই নাভালনির প্রতিও তিনি সমর্থন জানিয়েছেন। নাভালনি নির্বাচনে অংশ নিতে পারছেন না। কারণ তার বিরুদ্ধে আর্থিক অপরাধের অভিযোগ আনা হয়েছে। যদিও নাভালনি এই অভিযোগকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে প্রত্যাখ্যান করেছেন।

জরিপ বলছে, নির্বাচনে দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ভোট পাবেন পাভেল গ্রুডিনিন। তিনি কমিউনিস্ট পার্টির প্রধান। গত নির্বাচনে এই দলের তৎকালীন প্রধান জেনাডি জুগানোভ দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ভোট পেয়েছিলেন।

পুতিনের বিরুদ্ধে দাঁড়ানো আরেকজন উল্লেখযোগ্য প্রার্থী হলেন- ভ্লাদিমির ঝিরিনোভস্কি। পপুলিস্ট নীতির কারণে তাকে অনেক সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে তুলনা করা হয়েছে। গত নির্বাচনে তিনি চতুর্থ হয়েছিলেন।